আন্তর্জাতিক

আজান নিষিদ্ধের বিপক্ষে ইসরায়েলের পুলিশ

জেরুজালেমে মাইকে আজান নিষিদ্ধ সংক্রান্ত ইসরায়েলের পার্লামেন্টে উত্থাপন করা বিলটির বিপক্ষে মত দিয়েছে দেশটির পুলিশ। ওই বিল আরব নাগরিকদের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে বলে সরকারকে সতর্ক করে দিয়েছে তারা। এতে চরমপন্থা বাড়তে পারে বলেও আশঙ্কা পুলিশের।

 

ওই বিলের ফলে আরব সম্প্রদায়ের মধ্যে নিজেদের স্থান তৈরির পরিকল্পনা ভেস্তে যেতে পারে বলেও মনে করছেন তারা। রোববার ইসরায়েলি গণমাধ্যম ওয়ালার এক প্রতিবেদনে পুলিশের এক অভ্যন্তরীণ রিপোর্ট তুলে ধরা হয়। এতে বলা হয়েছে, ‘মসজিদগুলোর প্রতি যে ধরনের আচরণ করা হচ্ছে তা আরবদের জন্য খুবই স্পর্শকাতর।’ বিষয়টিকে বাড়িঘর গুঁড়িয়ে দেয়ার মতো সহজভাবে না দেখার জন্য বলা হয়েছে ওই রিপোর্টে।

 

মসজিদ থেকে মাইকে দৈনিক পাঁচবার প্রচারিত আজানের ধ্বনির ওপর বিধিনিষেধ আরোপের লক্ষ্যে গত ১৩ নভেম্বর ইসরায়েলি সংসদ নেসেটে একটি বিল উত্থাপন করা হয়। ওইদিন নেসেটে ইসরায়েলি আইনপ্রণেতারা দুটি বিল উত্থাপন করেন। একটিতে পশ্চিমতীরের অবৈধ বসতি স্থাপনকারীদের উচ্ছেদ করার চলমান একটি কর্মসূচি বন্ধ করে তাদের বৈধতা দেয়ার কথা বলা হয়েছে। অন্য বিলটিতে দৈনিক পাঁচবার উচ্চ শব্দে আজান সীমিত করতে উদ্যোগ গ্রহণের কথা বলা হয়েছে।

 

এ ব্যাপারে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, ‘আজানের শব্দ সীমিতকরণের এ উদ্যোগ মূলত বহু ইসরায়েলি নাগরিকের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে নেয়া হয়েছে। এতে বিভেদ সৃষ্টির সুযোগ নেই।’

 

তবে বিশ্লেষকরা তার এ বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করেছেন। ফিলিস্তিনের ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রী ইউসেফ ইদেইস বলেন, ‘ইসরায়েলের এ উদ্যোগ সংশ্লিষ্ট এলাকায় ইহুদি ও মুসলিমদের মধ্যে চরম বিভেদের ক্ষেত্র তৈরি করছে।’ সূত্র: মিডল ইস্ট মনিটর

Add Comment

Click here to post a comment