খেলা-ধুলা

আগামী আইপিএল কি হচ্ছে না?

hভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের অনিয়ম দূর করতে সুপ্রিম কোর্টের গঠিত লোধা কমিটির প্রস্তাব কার্যকর করা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে দীর্ঘ আইনি লড়াই চালাচ্ছে বিসিসিআই। গত সোমবার দেশের সর্বোচ্চ আদালতের রায়ের দিকে সকলেই তাকিয়ে ছিলেন। কিন্তু শুনানি পিছিয়ে গেছে শুক্রবার পর্যন্ত। আর তাতেই সিঁদুরে মেঘ দেখছেন বিসিসিআই কর্তারা। আগামী বছর আইপিএল করা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে বোর্ডে। ৮ এপ্রিল আইপিএল শুরু হওয়ার কথা। যার অর্থ হাতে মাত্র আর চার মাস বাকি। কিন্তু এখননো কোনো চুক্তি সম্পন্ন হয়নি। ক্রিকেটারদের নিলাম বাকি। লজিস্টিক নিয়ে কোনো প্ল্যানিং হয়নি। ক্রিয়েটিভ ম্যানেজমেন্ট ভাড়া, বিজ্ঞাপনসহ নানা কাজ বাকি বলে বোর্ডের দাবি। আর অল্প সময়ের মধ্যে তা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা কঠিন হবে। বিসিসিআইয়ের এক কর্তা বলেন, ‘আইএমজি প্রত্যেক বছর অক্টোবরেই কাজ শুরু করে দেয়। তারা এখনও কাজ শুরু করতে পারেনি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা পাঁচ-ছয় মাস আগেই হয়ে যায়। এবার সেটা হয়নি। ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি ক্রিকেটারদের ট্রেনিংয়ের সূচি তৈরি করতে পারছে না। পরিস্থিতি খুবই জটিল। এরকম চললে আইপিএল আগামী বছর বন্ধ রাখতে হতে পারে।’
এদিকে, ভারত-ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজ নিয়ে ফের জটিলতা দেখা দিয়েছে। ম্যাচ আয়োজনের অর্থ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল বিসিসিআই। কারণ, লোধা কমিটির প্রস্তাব সময়মতো কার্যকর না করায় সুপ্রিম কোর্ট বোর্ডের আর্থিক স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছিল। ফলে বোর্ড কর্তারা ইচ্ছা মতো অর্থ ব্যয় করতে পারছিলেন না। সাধারণ, অতিথি দেশের ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফদের যাবতীয় খরচ আয়োজক দেশের ক্রিকেট বোর্ডকে বহন করতে হয়। তাই ইংল্যান্ড দলের খরচ বিসিসিআইকে দিতে হবে। প্রথম তিনটি ম্যাচের জন্য সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে লোধা কমিটি অর্থ মঞ্জুর করেছিল। কিন্তু মুম্বই ও চেন্নাই টেস্ট আয়োজন নিয়ে ফের আর্থিক সংকটের মুখে পড়েছে বিসিসিআই। বোর্ড কর্তারা ফের দেশর সর্বোচ্চ আদালতে রিভিউ পিটিশন দাখিল করতে চলেছেন। কিন্তু মুম্বইয়ে ভারত-ইংল্যান্ড চতুর্থ টেস্ট শুরু হবে ৮ ডিসেম্বর। আর লোধা কমিটি নিয়ে ৯ ডিসেম্বর সুপ্রিম কোর্টে শুনানি হয়েছে। আপাতত এই সমস্যার সমাধান কীভাবে হয় সেটাই দেখার!

ভিডিওঃ নিজের চোখে দেখুন! সাপের মাথা থেকে কি ভাবে নাগমনি নেয়া হয় (ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment



সর্বশেষ খবর