Advertisements
খেলা-ধুলা

আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেরা একাদশে জায়গা করে নিলেন তামিম

প্রথমবারের মতো নিজেদের যোগ্যতায় আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলতে গিয়ে দারুণ সফল বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের মতো দলকে বিদায় করে সেমি-ফাইনাল খেলে টাইগাররা। আর দলের দুর্দান্ত এ সাফল্যে সবচেয়ে বেশি কৃতিত্ব ছিল ওপেনার তামিম ইকবালের। তাই আগের সপ্তাহেই ক্যারিয়ার সেরা র‍্যাঙ্কিং ১৭ তে উঠেছেন তিনি। এবার আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির অফিসিয়াল সেরা একাদশেও জায়গা করে নিলেন এ ড্যাশিং ব্যাটসম্যান। আইসিসির এই একাদশের অধিনায়ক করা হয়েছে চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহেমদকে।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেরা একাদশ নির্বাচন করেছে আইসিসির ৬ সদস্যের একটি দল। সেখানে ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক মাইকেল অ্যাথারটন, ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী, পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক রমিজ রাজা আছেন। ক্রিকেট লেখক ও উইজডেন অ্যালমানাকের সম্পাদক লরেন্স বুথ, এএফপির ক্রিকেট বিষয়ক সাংবাদিক জুলিয়ান গায়েরের সঙ্গে চেয়ারম্যান হিসেবে ছিলেন আইসিসির জেনারেল ম্যানেজার জিওফ এলারডাইস।

জুরিদের করা এ একাদশে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হিসেবে আছেন একমাত্র তামিমই। সর্বাধিক চার পাকিস্তানি আছেন এ দলে। ভারত ও ইংল্যান্ড থেকে তিন জন করে আছেন। দ্বাদশ খেলোয়াড় হিসেবে আছেন নিউজিল্যান্ডের একজন।

বাংলাদেশকে প্রথমবারের মতো আইসিসির কোন টুর্নামেন্টের সেমি-ফাইনালে তোলার কারণেই সেরা একাদশে আছেন তামিম। তবে ওপেনিংয়ে জায়গা হয়নি তার। আছেন তিন নম্বরে। ওপেনিংয়ে টুর্নামেন্টের গোল্ডেন ব্যাট জয়ী ভারতের শিখর ধাওয়ানের সঙ্গে আছেন পাকিস্তানের নতুন বিস্ময় ফখর জামান।

চার নম্বরে আছেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। টুর্নামেন্টে ২৫৪ রান করার কারণে আছেন ইংল্যান্ডের জো রুট। আর দলে একমাত্র অলরাউন্ডার হিসেবে আছেন রুটের স্বদেশী বেন স্টোকস। ১৮৪ রানের পাশাপাশি ৩টি উইকেটও পেয়েছেন এ ইংলিশ।

১৩ উইকেট নিয়ে গোল্ডেন বল জয়ী হাসান আলি স্বাভাবিকভাবেই আছেন দলে। তার সঙ্গে আরও দুই পেসার ভারতের ভুবনেশ্বর কুমার ও পাকিস্তানের জুনাইদ খান। দলে বিশেষজ্ঞ স্পিনার হিসেবে আছেন ইংল্যান্ডের লেগি আদিল রশিদ। তবে জায়গা হয়নি দুর্দান্ত বোলিং করে ফাইনালে ভারতকে ধসিয়ে দেওয়া পাকিস্তানি পেসার মোহাম্মদ আমিরের।

আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে প্রথমবারের মতো পাকিস্তানের শিরোপা স্বাদ দেওয়া দলের নেতৃত্বের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সরফরাজ আহেমদকে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রায় একক নৈপুণ্যে দলকে জয় উপহার দিয়েছিলেন তিনি। দলটির উইকেট কিপিং গ্লাভসও থাকছে তার হাতে।

আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি সেরা একাদশ :
১. শিখর ধাওয়ান (ভারত) (৩৩৮ রান)
২. ফখর জামান (পাকিস্তান) (২৫২ রান)
৩. তামিম ইকবাল (বাংলাদেশ) (২৯৩ রান)
৪. বিরাট কোহলি (ভারত) (২৫৮ রান)
৫. জো রুট (ইংল্যান্ড) (২৫৮ রান)
৬. বেন স্টোকস (ইংল্যান্ড) (১৮৪ রান ও ৩ উইকেট)
৭. সরফরাজ আহমেদ (পাকিস্তান) (অধিনায়ক) (উইকেটরক্ষক) (৭৬ রান ও ৯ ডিসমিসাল)
৮. আদিল রশিদ (ইংল্যান্ড) (৭ উইকেট)
৯. জুনাইদ খান (পাকিস্তান) (৮ উইকেট)
১০. ভুবনেশ্বর কুমার (ভারত) (৭ উইকেট)
১১. হাসান আলি (পাকিস্তান) (১৩ উইকেট)
১২. কেন উইলিয়ামসন (নিউজিল্যান্ড) (দ্বাদশ) (২৪৪ রান)

Advertisements