Advertisements
আন্তর্জাতিক

অ্যাসিড খাইয়ে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে খুন

অ্যাসিড খাইয়ে স্ত্রী এবং তার গর্ভে থাকা সন্তানকে খুন করার অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার রাতে ভারতের চণ্ডীপুরের চৌখালি কোটবাড়ে ঘটনাটি ঘটেছে। বাপেরবাড়ি থেকে টাকা না নিয়ে আসায় এ ঘটনা ঘটিয়েছেন।

অ্যাসিড খাওয়ার পর স্ত্রীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে ভারতের তমলুক জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নষ্ট হয়ে যায় গর্ভস্থ ভ্রূণ। পরে তার মৃত্যু হয়।

এদিকে ঘটনার পর স্ত্রীকে ফেলে পালিয়ে যায় গৃহবধূর তার গোটা পরিবার। খবর পেয়ে মৃতার বাপেরবাড়ির লোকজন হাসপাতালে ছুটে আসেন। পরে তাঁরা চণ্ডীপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

বছর খানেক আগে চণ্ডীপুর থানা এলাকার নারাণদাঁড়ি গ্রামের বাসিন্দা শেখ রবিউলের মেয়ে রুবিনার নিকাহ হয় পাশের গ্রাম চৌখালি কোটবাড়ের বাসিন্দা শেখ রেজাবুলের সঙ্গে।

নিকাহর কিছুদিন পর থেকেই রেজাবুল অতিরিক্ত পণের দাবিতে স্ত্রীর উপর অত্যাচার শুরু করে। এর উপর রুবিনা অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে আরও চটে যায় রেজাবুল। ভ্রূণ নষ্ট করার জন্য চাপ দিতে থাকে। এজন্য তাঁকে গ্রামের এক কোয়াক ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। রুবিনা কান্নায় ভেঙে পড়েন। রেজাবুল রুবিনাকে শর্ত দেয়, গর্ভের ভ্রূণ বাঁচাতে হলে বাপেরবাড়ি থেকে লক্ষাধিক টাকা আনতে। ভয় পেয়ে রুবিনা প্রস্তাবে রাজি হয়ে যায়।

সাময়িক রক্ষা পেলেও কিছুদিনের মধ্যেই টাকা আনার জন্য ফের অত্যাচার শুরু হয়। রুবিনার মা সাকিনা মেয়ের উপর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে পরপর দু’-বারে জামাইকে ৩০ হাজার টাকা দেন। এভাবে রুবিনা ধীরে ধীরে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন।

মঙ্গলবার সকালে বাপেরবাড়ি থেকে ফের টাকা আনার জন্য চাপ দিয়ে রুবিনার উপর চরম অত্যাচার শুরু করে রেজাবুল। কিন্তু, রুবিনা গরিব বাবা-মায়ের কাছ থেকে আর টাকা আনতে পারবে না বলে জানিয়ে দেন। তাতে বেজায় ক্ষুব্ধ হয়ে রেজাবুল ভ্রূণ নষ্ট করতে স্ত্রীকে জোর করে অ্যাসিড খাইয়ে দেয়। অভিযোগ, একাজে তাকে সাহায্য করে রুবিনার শ্বশুর-শাশুড়িও। পুলিশ অভিযুক্তদের খুঁজছে।

Advertisements