খেলা-ধুলা

অবশেষে বাংলাদেশের কি লাভ হলো?

টেস্ট সিরিজ জুড়ে আলোচনায় ছিল দুই ম্যাচেই টস জিতে মুশফিকের ব্যাটিং বেছে নেওয়ার বিষয়টি। ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে ফিল্ডিং নেওয়ায় অবাক হয়েছিলেন প্রতিপক্ষ দলের ক্রিকেটাররাও।
ফাফ ডু-প্লেসিস তো মুশফিককে বিদ্রুপ করে বলেছিলেন, পরেরবার টস জিতলে সিদ্ধান্তটা মুশফিকের ওপর ছেড়ে দেব! এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে ওয়ানডে সিরিজের প্রস্তুতি নিচ্ছে টাইগাররা। আজ একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংও নিয়েছে। কিন্তু লাভ কি কিছু হলো?

জেপি ডুমিনির নেতৃত্বাধীন দক্ষিণ আফ্রিকা আমন্ত্রিত একাদশের বিপক্ষে অল-আউট হয়েছে মাশরাফি বাহিনী! অবিশ্বাস করার কোনো কারণ নেই! ৪৮.১ ওভারে অল-আউট হওয়ার আগে টাইগারদের সংগ্রহ ২৫৫ রান! আজকাল ধুম ধারক্কা ব্যাটিংয়ের ক্রিকেটে এটা কোনো রানই নয়! তাহলে প্রশ্ন, টসে জিতে ব্যাটিং নেওয়া কি পরিকল্পনায় ছিল, নাকি টেস্ট সিরিজের আক্ষেপ ঘুচাতেই এই সিদ্ধান্ত?

টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপদে পড়ে বাংলাদেশ। দলীয় ৬১ রানের মধ্যে প্যাভিলিয়নে ফিরেন দুই ওপেনার সৌম্য সরকার (৩) এবং ইমরুল কায়েস (২৭) আর লিটন দাস (৮)। দুজনেই ফ্র্যালিংকের বলে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন।

পরীক্ষমুলকভাবে তিন নম্বরে নেমে লিটন দাসও উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়েছেন।

পরবর্তী ব্যাটসম্যানরাও সুবিধা করতে পারেননি। মুশফিকুর রহিম ফিরেছেন ২২ রান করে। ভালো খেলতে খেলতে ২১ রানে এলবিডাব্লিউ হয়ে গেছেন মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ।
সবার বিপরীতে দাঁড়িয়ে সাকিব ৯টি চারে সাজিয়েছেন তার ৬৮ রানের ইনিংসটি। হাফ সেঞ্চুরি করেছেন ৫৪ বলে। ৭ নম্বরে নেমে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন সাব্বির রহমানও। ৭১ বলে ৩ বাউন্ডারিতে ৫২ রান করে আউট হন তিনি। এছাড়া বাকী ব্যাটসম্যানরা কেউই ৩০ এর ঘর পার হতে পারেননি।